ডেসটিনির-চেয়ারম্যান-এমডিকে-কারাগারেই-থাকতে-হচ্ছে

ডেসটিনির চেয়ারম্যান-এমডিকে কারাগারেই থাকতে হচ্ছে


দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা দুই মামলায় ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আমীনের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। ফলে কারাগারেই থাকতে হচ্ছে ডেসটিনির দুই কর্তাকে।


Hostens.com - A home for your website

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন ছয় সদস্যের আপিল বিভাগ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে বিচারিক আদালতে থাকা ওই মামলা দুটির যত দ্রুত সম্ভব নিষ্পত্তি করতে বলেছেন আপিল বিভাগ।

দুই মামলায় জামিন চেয়ে আগস্ট মাসে আপিল বিভাগে আবেদন করেছিলেন ডেসটিনির ওই দুই শীর্ষ কর্তা। এ আবেদন চেম্বার বিচারপতির আদালত হয়ে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য ওঠে। গত রোববার শুনানি নিয়ে আজ আদেশ দিলেন আদালত।

আদালতে ডেসটিনির দুই শীর্ষ কর্তার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আজমালুল হোসেন কিউসি। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এম মইনুল হাসান। আর দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান।

খুরশীদ আলম খান বলেন, ২০১৬ সালের নভেম্বর ডেসটিনি তাদের গাছ বিক্রি করে টাকা দেবে, এমন শর্তে আপিল বিভাগ তাদের দুজনকে জামিন দিয়েছিলেন। এ শর্ত সংশোধন চেয়ে তারা ২০১৭ সালে আপিল বিভাগে আবেদন করেছিলেন। এই আবেদন চলতি বছরের ৩০ নভেম্বর খারিজ হয়ে যায়। এখন তারা আবার জামিন চাইলেন। কিন্তু কোনো শর্ত পূরণ করল না। আমরা আবেদন খারিজ করার আর্জি জানিয়েছি।

২০১২ সালের ৩১ জুলাই রফিকুল আমীন ও মোহাম্মদ হোসেনসহ ডেসটিনি গ্রুপের ২২ জনের বিরুদ্ধে রাজধানীর কলাবাগান থানায় দুটি মামলা করে দুদক। ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ (এমএলএম) ও ট্রি-প্ল্যানটেশন প্রকল্পের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থের মধ্যে ৩ হাজার ২৮৫ কোটি ২৫ লাখ ৮৮ হাজার ৫২৪ টাকা আত্মসাৎ করে পাচারের অভিযোগে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে মামলা দুটি করা হয়। বর্তমানে এ মামলায় দুজনই কারাগারে রয়েছেন।

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ

Web Hosting and Linux/Windows VPS in USA, UK and Germany

Visitor Today : 29

Visitor Yesterday : 34

Unique Visitor : 150054
Total PageView : 155004