বিব্রত-মিথিলার-পাশে-দাঁড়ালেন-ভাবনা

বিব্রত মিথিলার পাশে দাঁড়ালেন ভাবনা


সময়ের আলোচিত অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলার সঙ্গে পরিচালক ইফতেখার আহমেদ ফাহমির বেশ কিছু ব্যক্তিগত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে ফেসবুকে তোলপাড় চলছে। বিষয়টি যে কারো জন্যই বিব্রতকর। ব্যক্তিগত গোপনীয় ছবিগুলো ফাঁস হওয়া মিথিলাও কিছুটা বিপাকে পড়েছেন।


Hostens.com - A home for your website

তবে মিথিলার এমন দু:সময়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন মিডিকর্মীরা। ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ফাঁস করায় নেটিজনদের ওপর চটেছেন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। তাদের মত, ব্যক্তিগত ছবি এভাবে সোশ্যালে ছড়িয়ে দেয়ার অধিকার কারো নেই।

মিথিলার পাশে দাঁড়িয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। ফাহমি-মিথিলার ছবি ভাইরাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটা খুবই অসম্মানজনক। আমরা সত্যিই জানি না সোশ্যাল মিডিয়া কীভাবে ব্যবহার করতে হবে। আমি তরুণ অভিনেত্রী। দেশের বাইরে যাই। সেখানে গিয়ে ছোট পোশাক পরে ছবি আপলোড করি। ফেসবুকে মন্তব্যের ঘরে কী জঘন্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়! শাড়ি পরে ছবি দিলেও গালাগালি। শুধু আমি নই, জ্যেষ্ঠ অভিনেত্রীদের ছবির নিচেও বাজে কমেন্ট করা হয়। সেটা যদি সুন্দর ছবিও হয়, তবুও।’

ভাবনা আরও বলেন, ‘আমার কাজ অভিনয় করা। এটা আমার পেশা। তার মানে তো এই নয় যে আমি খারাপ মানুষ। আমরা আসলে মানুষকে সম্মান করতে জানি না। আগে সবাই অভিনয়শিল্পীদের সম্মান করত, এখন কেউ করে না। এটা দুঃখজনক।’

যারা ব্যক্তিগত ছবি ছড়িয়ে দেয়, তাদের রুচি নিয়েও প্রশ্ন তোলেন এ অভিনেত্রী। বলেন, রুচিহীন নির্বোধরাই এসব করতে পারে।
মিথিলার প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করে ভাবনা বলেন, ‘মিথিলা অনেক গুণী শিল্পী। শুধু তা-ই নয়, তিনি একজন সমাজকর্মী। এছাড়া তিনি একজন মা। হ্যাকার বা যারা ব্যক্তিগত ছবি ছড়িয়েছে, তারা জঘন্য। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া উচিত। এসবে আসলে মিথিলার কিছুই হবে না। তবে একটা কথা সবার মনে রাখা উচিত—আমরা মানুষকে সম্মান দিতে না জানি, অন্তত যেন কারো ক্ষতি না করি। আর এভাবে চলতে থাকলে তো ফেসবুক ছেড়ে দিতে হবে। কী দরকার ফেসবুক ব্যবহার করে গালি শোনার?’

ভাবনা এক ফেসবুক পোস্টে লিখেন, ‘কারো ইনবক্সের কথা বা তথ্য প্রচার করা—যে করেছে, সে কোনো মানুষ হতে পারে না। তাকেও কোনো মেয়ে জন্ম দিয়েছে। অন্য মানুষের ছবি ভাইরাল করে তোর লাভ কোথায়? আমরা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করতে শিখিনি।’

সোমবার রাতে ফেসবুকের একটি গ্রুপ থেকে ফাহমি-মিথিলার অন্তরঙ্গ একটি ছবি পোস্ট করা হয়। এরপর রাতে একাধিক ছবি ছড়াতে থাকে।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট ভালোবেসে সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসানকে বিয়ে করেন মিথিলা। তাদের সংসারে আইরা তেহরীম খান নামে এক কন্যাসন্তান রয়েছে। তবে দুজনের বনিবনা না হওয়ায় ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে বিচ্ছেদে যান তারা।

পরে কলকাতার পরিচালক সৃজিত মুখার্জির সঙ্গে একাধিকবার মিথিলাকে দেখা গেছে। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক নিয়েও গুঞ্জন রয়েছে। তবে বিষয়টি নিছক গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন মিথিলা।

২০১৭-১৮ সালে ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সঙ্গে মিথিলার সম্পর্ক ছিল। তাদের মধ্যকার সম্পর্ক থাকাকালের কিছু ছবি ফাঁস হয়েছে। সম্পর্কের কথা স্বীকার করে মিথিলা ফেসবুকে লিখেন- ‘ফাহমির ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক হয়েছিল। তখনই অপরাধীরা খারাপ উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য এগুলো খুঁজে নিয়েছে। এখানে ডেটিং শব্দটির ওপর জোর দিতে চাই, যার অর্থ আমরা একটি সম্পর্কে ছিলাম। সহজভাবে বললে- দুটি মানুষ একে অপরের সঙ্গে জড়ালে ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত কাটায়, ছবি তোলে। প্রযুক্তির যুগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তারা এগুলো ভাগ করে নেয়। তবে নিজের গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই।’

Facebook Comments

" বিনোদন " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ

Web Hosting and Linux/Windows VPS in USA, UK and Germany

Visitor Today : 97

Visitor Yesterday : 117

Unique Visitor : 145273
Total PageView : 152295